কংগ্রেস সভাপতির ভূমিকায় অসহায় আব্দুল মান্নান

সবসংবাদ: সারদা কাণ্ডের তদন্তে সিবিআইকে চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে যান কংগ্রেস নেতা আব্দুল মান্নান। তখন কেন্দ্রে কংগ্রেসের সরকার। মামলা সুপ্রিম কোর্টে আটকে থাকে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী ১১ কোটি সরকারি টাকা খরচ করে যাতে সারদা কাণ্ডে তদন্তের ভার সিবিআইকে না দেওয়া হয়। কিন্তু শেষ রক্ষা হয় নি। সুপ্রিম কোর্ট ২০১৪ সালে তার রায়ে জানিয়ে দেন এই চিটফান্ড কাণ্ডের তদন্ত রাজ্যের তদন্তকারী সংস্থার দ্বারা সম্ভব নয় কারণ সারদা কোম্পানি শুধু পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়, আসাম, উড়িশা থেকেও এই কোম্পানি টাকা তুলেছে। সুপ্রিম কোর্টের রায়ে সারদা কাণ্ডের তদন্ত করছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই।

আরও পড়ুন: কংগ্রেসে যোগ দিলেন বিজেপি নেতা অমলেন্দু চট্টোপাধ্যায়

একজন বরিষ্ঠ কংগ্রেস নেতার আবেদনে সুপ্রিম কোর্ট সিবিআই তদন্তের অনুমতি দিয়েছে। আদালতের নির্দেশে সিবিআই তদন্ত চালাচ্ছে। আর সেই তদন্তে বাধা দিচ্ছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল সহ রাজ্য সরকার। সিবিআইয়ের ভূমিকার প্রতিবাদে ধর্ণা দিচ্ছে মমতা ব্যানার্জী। সেই ধর্নায় মমতার সাথে আছি বলে দিল্লির থাকে বার্তা দিচ্ছেন রাহুল গান্ধী। এই ঘটনায় সত্যি অসহায় আব্দুল মান্নান। রাহুল গান্ধী প্রধানমন্ত্রী হবার আশায় মমতাকে বাঁচাতে চাইলেও রাজ্য কংগ্রেসের নেতা বিধানসভার বিরোধী নেতা আব্দুল মান্নান চাইছেন না রাহুল দাঁড়াক মমতার পাশে। এর আগেও সিবিআই আটকাতে রাজ্য সরকারের হয়ে সওয়াল করেন কংগ্রেসের নেতা কপিল সিব্বল। তখন অসহায় ছিলেন আব্দুল মান্নান।

565Shares