এক্সক্লুসিভ: বনগাঁ লোকসভায় বিজেপির প্রার্থী হছেন দুলাল বর?

সবসংবাদ: লোকসভা নির্বাচনের সূচনা দিতেই দুদিনের মধ্যে দলীয় প্রার্থীর নাম ঘোষণা করে দিয়েছে তৃণমূল। বিজেপির প্রার্থী তালিকা নিয়ে সংসদীয় কমিটির বৈঠকে একপ্রকার প্রার্থীর নাম ঠিক হয়ে গেছে। শুধু ঘোষণা হতে বাকি। আগামী শুক্রবার বিজেপির প্রথম দফার প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করবে বিজেপি।

বিজেপির প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করা নিয়ে বিতর্ক চলছে। সূত্রের খবর মোট চারটি তালিকা গেছে দিল্লিতে। আরএসএস এর পক্ষ থেকে একটি তালিকা, রাজ্য সভাপতির একটি তালিকা, বিস্তারকদের একটি তালিকা এবং মুকুল রায় নিজেও একটি তালিকা জমা দিয়েছেন। সূত্রের খবর, একটি তালিকাতে বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রে প্রার্থী হিসাবে দুলাল বরের নাম আছে।

আরও পড়ুন- বড় খবর: লোকসভার আগে ৯জন বিধায়ক বিজেপিতে, দেখুন কারা?

দুলাল বর গতকাল দিল্লীতে গিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। বাগদা বিধানসভার কংগ্রেসের বিধায়ক একসময় তৃণমূলের সৈনিক ছিলেন। ২০০৭ সালে মমতার সিঙ্গুরে আটকানো নিয়ে বিধানসভায় ভাঙচুর করে। তখনই রাজ্য জুড়ে তার নাম সামনে আসে। ২০১৬ সালে তৃণমূলের টিকিট না পেয়ে বাম -কংগ্রেসের জোট প্রার্থী হয়ে হাত প্রতীকে জিতে ফের বিধায়ক হন। বাগদাতে কংগ্রেসের ভালো সংগঠন না থাকলেও বামেদের সম্পূর্ণ ভোট পায় দুলাল। কংগ্রেসে জিতে তিনি আবার তৃণমূলের ঘনিষ্ঠ হন। হঠাৎ তিনি মুকুল রায়ের হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন।

দ্বিমত বিজেপিতে

দুলাল বর বিজেপিতে যোগ দিলেও বনগাঁর বিজেপি কর্মীরা তাতে খুব আনন্দিত নন। বনগাঁ লোকসভার এক বিজেপি নেতা বলেন, দুলাল বর প্রার্থী হলে বিজেপির যে সম্ভাবনা ছিল সেটি থাকবে না। তিনি তো সরাসরি মুকুল রায়ের দিকে আঙ্গুল তুলে অভিযোগ করলেন যে তৃণমূল থেকে উনি এসে দলের ক্ষতি করছেন। জেক তাকে ডালে এনে প্রার্থী করছেন। এনাদের দিয়ে বিজেপির শেষ উঠবে না। দলকে পরে পস্তাতে হবে।গত লোকসভার উপনির্বাচন যেমন হেরেছিল ঠিক তেমনই হবে এবার।

প্রসঙ্গত গত ২০১৪ লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী ছিলেন রাষ্ট্রপতি পুরস্কারপ্রাপ্ত প্রাক্তন আমলা কেডি বিশ্বাস। লোকসভার উপনির্বাচনে তাকে প্রার্থী না করে সদ্য তৃণমূল থেকে আসা সুব্রত ঠাকুরকে প্রার্থী করে বিজেপি। তাতে বিজেপির জয় তো দূরের কথা তৃতীয় স্থানে এসে পৌঁছায় ফলাফলে।

# bangaon loksobha bjp candidate

সব সংবাদের খবর ভালো লাগলে Like করুন ‘ সব সংবাদ ‘ Facebook Page

3600Shares