সমীক্ষা: জানেন কত শতাংশ মুসলিম ভোট পায় তৃণমূল কংগ্রেস?

বৃন্দাবন, সবসংবাদ ডেস্ক: অনেকে ধারণা করেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুসলিম ভোটেই মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন। কিন্তু হিসাব আপনার ধারনাকে ভুল প্রমাণ করতে পারে।

২০১১ সালের সালের আদমসুমারি অনুযায়ী পশ্চিমবঙ্গে ২৭.০১ শতাংশ মুসলিম সম্প্রদায়ের বসবাস রয়েছে। ২০১৪ সালের বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর ধর্মভিত্তিক জনগণনার ফল প্রকাশ্যে আসে। রাজ্যের মুর্শিদাবাদ, মালদা এবং উত্তর দিনাজপুর জেলা সবথেকে মুসলমান জনবহুল জেলা। গত লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেস চারটি আসন ও বামেরা দুটি আসন জিতেছিল। বহরমপুর, জঙ্গিপুর, মালদা উত্তর ও মালদা দক্ষিণ লোকসভা আসন জেতে কংগ্রেস। রায়গঞ্জ ও মুর্শিদাবাদ আসন দুটিতে জয়ী হয় বামেরা। কংগ্রেসের চারটি আসন এবং বামেদের এই দুটি আসন এই মুসলমান অধ্যুষিত এলাকা থেকেই।

আরও পড়ুন: সমীক্ষা: বসিরহাট লোকসভা জয়ের কাছাকাছি বিজেপি

বাংলার মুসলিম প্রধান জেলা গুলিতে তৃণমূল জেতে নি অর্থাৎ মুসলমান সম্প্রদায়ের সর্বাধিক ভোট পাননি মমতার তৃণমূল কংগ্রেস। জেলা অনুযায়ী ধর্মভিত্তিক জনসংখ্যা প্রকাশ করে নি সরকার, তাই কোন জেলায় কত শতাংশ মুসলমা তার তথ্য নেই আমাদের কাছে। তবুও ধারণা করা যায় মালদা ও মুর্শিদাবাদে ৬০ শতাংশের বেশি মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষের বসবাস। রাজ্যের মোট ২৭ শতাংশ মুসলিমের মধ্যে ১৯ শতাংশ মুসলিম এই তিন জেলাতে বসবাস করে। যেখানে তৃণমূল গত লোকসভাতে আসন পায়নি। রাজ্যের বাকি ৮ শতাংশ মুসলিমের ভোটের মধ্যে বাম কংগ্রেসের ভোটও প্রায় সমান সমান।

সঠিক সংখ্যা ও শতাংশ নির্ণয় করা কঠিন শুধু নয়, অসম্ভবও। তবুও একটি ধারণা দেওয়া হল। সংখ্যালঘুদের ভোট পেতে মরিয়া ছিল রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। আর তার বিরুদ্ধে তোষণের অভিযোগ তুলে রাজ্যে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে বিজেপি। কিন্তু এখন মমতা ব্যানার্জী নিজেও বুঝেছেন যে মুসলিম তোষণে হিন্দু ভোট তার থেকে দূরে চলে যাচ্ছে। তাই তিনি এবার আর সরাসরি মুসলিম তোষণে যাবেন না বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

সব সংবাদের খবর ভালো লাগলে Like করুন ‘ সব সংবাদ ‘ Facebook Page

1007Shares