আবার তৈরি করা হলো শতাধিক অবৈধ দোকান

রাজধানীর গুলিস্তানের সুন্দরবন স্কয়ার সুপার মার্কেটে আবার নকশাবহির্ভূতভাবে শতাধিক দোকান তৈরি করা হয়েছে। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের শীর্ষ এক নেতা ও একজন ব্যবসায়ী এই কাজে নেতৃত্ব দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) তৎকালীন মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকনের সময় মার্কেটের পার্কিংয়ের জায়গা, বিভিন্ন তলায় হাঁটার জায়গা, ভবনের সৌন্দর্যবর্ধনে রাখা খালি জায়গা থেকে শুরুর করে নকশাবহির্ভূতভাবে দোকান তৈরি করা হয়েছিল। ব্যবসায়ীদের ভাষ্য, সে সময় মার্কেটের নিয়ন্ত্রণ ছিল ২০ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মো. সাহাবুদ্দীন ও ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ ওরফে ম্যাজিক রতনের হাতে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস প্রথম আলোকে বলেন, ‘জানতে পেরেছি, বিভিন্ন মার্কেটে বিভিন্ন নামে আবারও অবৈধভাবে দোকান তৈরি করা হচ্ছে। এ বিষয়ে সবাইকে সতর্ক করতে এরই মধ্যে আমরা ভ্রাম্যমাণ আদালতও পরিচালনা করেছি। এ ধরনের কার্যক্রম চলমান থাকলে পরবর্তী সময়ে আরও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ডিএসসিসি মালিকানাধীন এই মার্কেটে গত বছরের ডিসেম্বরে বড় পরিসরে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়। অভিযানে প্রায় সাড়ে ৭০০ নকশাবহির্ভূত দোকান ভেঙে দেওয়া হয়।

মার্কেটের ব্যবসায়ী ও ডিএসসিসির প্রকৌশলীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, উচ্ছেদ অভিযান শেষ হওয়ার মাসখানেক পরই নকশাবহির্ভূতভাবে দোকান তৈরির কাজ আবার শুরু হয়। শুরুর দিকে এই কাজ গভীর রাতে করা হচ্ছিল। করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে সরকার কঠোর বিধিনিষেধ জারি করলে মার্কেট বন্ধ থাকে। এ সময় দোকান তৈরির কাজ পুরোদমে এগিয়ে যায়। গত রোববার দিনদুপুরে কাজ চলতে দেখা যায়।

ব্যবসায়ীরা জানান, এবার এসব দোকান তৈরিতে নেতৃত্ব দিয়েছেন ব্যবসায়ী ফিরোজ আলম ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মান্নাফি। এই দুজনের মধ্যে ফিরোজ কাজ করেছেন ২০ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মো. সাহাবুদ্দীনের প্রতিনিধি হিসেবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।